রবিবার, ১০ ডিসেম্বর ২০২৩, ০২:০৭ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
জ্ঞানানুশীলনমূলক সংগঠন ‘দি মেসেজ’র ব্যবস্থাপনায় “সুফি কথন” [মানকাবাতে বিশ্বঅলি শাহানশাহ্ হযরত সৈয়দ জিয়াউল হক মাইজভাণ্ডারী (ক.)] অনুষ্ঠিত। চরণদ্বীপ দরবার শরীফ গাউছিয়া আহমদিয়া রহমানিয়া সংসদ চট্টগ্রাম মহানগর শাখার অভিষেক আজ জয়িতা সম্মাননা পেয়েছেন জনপ্রতিনিধি হিসিবে একটানা ৩০ বছরেরও বেশি সময় পার করা কাউন্সিলর ফিরোজা বেগম গাউছিয়া হক মন্জিলের প্রতিনিধিগণ ফটিকছড়ি উপজেলায় নবনিযুক্ত ইউএনও সাথে সৌজন্য সাক্ষাৎ, চরণদ্বীপ দরবার শরীফের ১৩২ তম ওরশ শরীফের প্রস্তুতি সভা সম্পন্ন আধুনিক বিশ্বে নৈতিক বৈশ্বিকমানের মানুষ গঠনে মানুষকে ভালবাসতে হবে। -ড. নিজাম উদ্দিন জামি। ইমাম আল্লামা ফরহাদাবাদী (ক) শীর্ষক সেমিনার ২০২৩ অনুষ্ঠিত শিশু ও গণশিক্ষা কার্যক্রম প্রকল্প ৬ষ্ঠ ধাপের প্রাক-প্রাথমিক শিক্ষা বার্ষিক মূল্যায়ন পরীক্ষা বিভিন্ন কেন্দ্র পরিদর্শন আশেকানে হক ভান্ডারী, শোকর – এ মওলা মনজিলের মাসিক মাহফিল সম্পন্ন মাইজভান্ডারী একাডেমির আয়োজনে বোস্টনে ” সুফি দৃষ্টিভঙ্গি শান্তি এবং ন্যায় বিচার” শীর্ষক মুক্ত আলোচনা অনুষ্ঠিত
নোটিশ :

মুজিব আদর্শের অন্যতম রাজপথ কাঁপানোর আরেক নাম মামুনুর রশীদ মামুন,

রাজপথ আর কারাগার থেকে বিকশিত আওয়ামীলীগের দুঃসময়ে নেতৃত্ব চট্রলবীর এবিএম মহিউদ্দীন চৌধুরীর ডানহস্তখ্যাত পলিট্যাকনিক্যাল ছাত্রলীগের প্রতিষ্টাতা ছাত্রলীগের সাবেক সাঃসম্পাদক, ওমরগনি এম.ই.এস. বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ ছাত্র সংসদের সাবেক জিএস, চট্রগ্রাম মহানগর ছাত্রলীগের সাবেক সহ- সভাপতি, কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সাবেক সদস্য, চট্রগ্রাম মহানগর আওয়ামীলীগের সদস্য, সাবেক কমিশনার আলহাজ্ব মামুনুর রশীদ মামুন বলেন আমরা যখন ছাত্রলীগ করতাম তখন সিনিয়রদের খুব সম্মান করতাম আর দলকে ও নেতাকে খুব ভালবাসতাম,আমি ছিলাম বঙ্গবন্ধু আদর্শের নিবেদিত প্রাণ এ বি এম মহিউদ্দীন চৌধুরীর একজন ক্ষুদ্র কর্মী|তখনকার সময় ছিল দলের দুঃসময়, সে সময় আমরা প্রতি রাতে ঘরে ঘুমোতে পারিনি|হয়তো আজ শুনতে একদম সহজ মনে হবে,কিন্তু সে সময় যারা কষ্ট করেছে তাদের মধ্যে আমি একজন,আজও সেই কষ্ট নিয়ে শারীরিক ভাবে অসুস্থতা ভোগ করছি,তাই বাংলাদেশ ছাত্রলীগের ৩০ তম সম্মেলনের নব কমিটিতে যারা আসবে তাদের বলব বঙ্গবন্ধুর আদর্শ ও জননেত্রী শেখ হাসিনা যে ডিজিটাল বাংলাদেশের স্বপ্ন তিনি বাস্তবায়ন করেছেন সেই সফলতাকে ধরে রাখার জন্য সৎ ও বলিষ্ঠ রাজনীতি করতে হবে|সিটি কলেজের সাবেক ছাত্রনেতা জিয়াউল কচি বলেন ১৯৮৮ সালে আমি ছিলাম মেট্রিক পরীক্ষার্থী তখন থেকে মামুন রশিদ মামুন ভাই আমাকেও আমার মত অনেক ছাত্রলীগ কর্মীকে আপন ভাইয়ের মত সম্বোধন করত|দুঃসময়ের এই নেতা দলের জন্য খুবই প্রয়োজন,কারণ পদ পদবী বাণিজ্যে এই সাবেক ছাত্রলীগের ত্যাগী নেতাদের আমরা হারাতে বসেছি|তখনকার সময়ে চট্টগ্রাম মহানগর ৪১টি ওয়ার্ডের নেতাকর্মীকে একত্রিত করা সহজ বিষয় ছিল না|



ফেসবুকে আমরা

ফেসবুকে আমরা